আজ- মঙ্গলবার, ২৯শে নভেম্বর, ২০২২। ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯

শিরোনাম

‘বাংলাদেশ প্রমাণ করেছে তারা আমেরিকার নিরাপত্তার চমৎকার অংশীদার’

ইউএস সিনেটে ফরেন রিলেশন্স কমিটির  চেয়ারম্যান সিনেটর বব মেনেনডেজ বলেছেন, দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশের রয়েছে বিশাল সাফল্যের ইতিহাস। পৃথিবীর একটি দরিদ্র দেশ থেকে গত পঞ্চাশ বছরের ব্যবধানে আজ রাইজিং মিডল ক্লাসের দেশে উন্নীত হয়েছে বাংলাদেশ। আর মাত্র কয়েক বছরে বাংলাদেশ সম্পূর্ণ মধ্যবিত্তের দেশে পরিণত হবে। এটি একটি ব্যতিক্রমধর্মী ঘটনা।

নিউজাসির প্লেইন্সবরো  টাউনশিপের কাউন্সিলম্যান (ডেমক্র্যাট) এবং একুশে পদকপ্রাপ্ত লেখক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. নূরুন নবীর উদ্যোগে ২১ মার্চ সোমবার নিউজার্সিতে ক্রাউন প্লাজা হোটেলের বলরুমে বাংলাদেশী আমেরিকানদের পক্ষে সিনেটর বব মেনেনডেজকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। সেখানে স্বাগত বক্তব্যে ড. নবী সিনেটর মেনেনডেজের দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনের সাফল্য উল্লেখ করে বাংলাদেশ-আমেরিকার বর্তমান সুসম্পর্কে তার অবদানের জন্য ধন্যবাদ জানান। 

নিউজার্সি থেকে নির্বাচিত ডেমক্র্যাটিক পার্টির এই সিনেটর মেনেনডেজ আরও বলেন, বাংলাদেশ প্রমাণ করেছে তারা আমেরিকার নিরাপত্তার চমৎকার অংশীদার। বিশেষ করে আঞ্চলিক ও  আন্তর্জাতিক ইস্যুতে। তারা আমাদের কাউন্টার  টেরোরিজমের  একটি মিত্র দেশ। আমি এ জন্য বাংলাদেশের প্রশংসা করি।

বাংলদেশের গার্মেন্টস শিল্পের প্রশংসা করে সিনেটর বলেন, আমেরিকা এবং বিশ্বজুড়ে বাংলাদেশের গার্মেন্টস একটি উল্লেখযোগ্য রপ্তানি পণ্য। তিনি বলেন, পৃথিবীর ১৮ কোটি  জনসংখ্যার  এই দেশটির সামনে রয়েছে উন্নয়নের বিপুল সম্ভাবনা।

 

সিনেটর মেনেনডেজ আমেরিকা এবং বাংলাদেশের ৫০ বছরের কূটনৈতিক সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বলেন যে, এই  সম্পর্ক আরও  জোরদার করার লক্ষ্যে তিনি কাজ করবেন।
অনুষ্ঠানে ডেমোক্র্যাটিক পার্টি ও বাংলাদেশি কমিউনিটির বিশিষ্টজনদের মধ্যে ছিলেন বিজ্ঞানী ড. জিনাত নবী, সমাজ-সংগঠক গোলাম ফারুক ভূইয়া, ডা. ফারুক আজম, নাজনীন হুসেন, মিয়া হেলালী, ড. মোতাসিম বিল্লাহ, ড. কামরুল হাসান, ড. শাহরিয়ার চৌধুরী, সাঈদুর রহমান সাবু, ফেরদৌসী রহমান।  আরো ছিলেন প্লেইন্স বরো সিটির মেয়র পিটার কেন্টু, নিউজার্সি স্টেট সিনেটর ড্যান বেনসন প্রমুখ। নিজ স্টেট নিউজার্সিতে গবেষণা, চিকিৎসা এবং শিক্ষকতা পেশায় বিপুলসংখ্যক বাংলাদেশী বাস করছেন জেনে গভীর সন্তোষ এবং উচ্ছাস প্রকাশ করেন সিনেটর মেনেনডেজ।

এই রকম আরও খবর

সর্বশেষ খবর